Breaking

Wednesday, November 18, 2020

দীর্ঘ সাত বছরের অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে আপার প্রাইমারী চাকরী প্রার্থীদের !

দীর্ঘ সাত বছরের অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে আপার প্রাইমারী চাকরী প্রার্থীদের !




২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফর্ম পূরণ শুরু করে দীর্ঘ সাত বছর অতিক্রম হলেও সম্পন্ন হয়নি নিয়োগ প্রক্রিয়া। এর মাঝেই বহু পরীক্ষার্থী হতাশায় অন্যপথ বেছে নিয়েছে আবার বহু পরীক্ষার্থী এই আশায় বসে রয়েছে।
  • ২০১৪ - বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও আবেদন জমাকরন 
  • ২০১৫- পরীক্ষা গ্রহন 
  • ২০১৬- লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ 
  • ২০১৮ - ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন 
  • ২০১৯- ইন্টারভিউ গ্রহণ ও মেরিটলিস্ট প্রকাশ পর্যন্ত নিয়োগ অসম্পূর্ণ 
২০২০ তে আপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন দিনের পর দিন জোরদার হচ্ছে। একের পর এক রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বিধায়ক, সাংসদ, মহকুমা শাসক, জেলা শাসককের নিকট ডেপুটেশন দিয়ে তাঁদের সাত বছরের বঞ্চনার ব্যাথা সরকারের কাছে পৌঁছানোর জন্য ব্রতী হয়েছে। আপার প্রাইমারী প্রার্থীরা দাবী তুলেছে " 31 শে জুলাই এর মধ্যে নিয়ােগ প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।"

সামনে নির্বাচন, এমন পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার চাইছে যাতে দ্রুত নিয়োগ করা যায়-এমনটাই সূত্রের দাবী। কিন্তু  উচ্চ প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের উপর কোর্টের স্টে অর্ডার রয়েছে। যদিও এই কেসের সমস্ত শুনানি পর্ব শেষ হয়েছে কোলকাতা হাইকোর্টে। এখন ফাইনাল জাজমেন্ট এর অপেক্ষা।  সূত্রের খবর ১৯ থেকে ২২ নভেম্বর আপারের ফাইনাল জাজমেন্ট হতে পারে। 

এদিকে জানাগিয়েছে WBSSC ৭ সদস্যের একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে। যাতে স্টে অর্ডার উঠে গেলেই দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা যায়। 

জানা গিয়েছে স্টে অর্ডার উঠলেই যতদ্রুত সম্ভব West Bengal School Service Commission বা WBSSC এই কাউন্সিলিং -এর পর্ব শুরু করে দেবে , এর জন্য (Upper Primary Counselling) আগে থেকেই WBSSC ৭ সদস্যের একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে। সূত্রের খবর অন্যান্য বারের থেকে অনেকটা সহজেই হবে এবারের কাউন্সিলিং। কাউন্সিলিং প্রক্রিয়া সমস্তটাই অনলাইনে হওয়ার সম্ভাবনা। যাতে করে দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। 

No comments:

Post a Comment