Breaking

Friday, June 11, 2021

Krishak Bandhu Scheme: বাংলার কৃষক বন্ধু প্রকল্পে আপনার নাম রয়েছে? Download Form

Krishak Bandhu Scheme: বাংলার কৃষক বন্ধু প্রকল্পে আপনার নাম রয়েছে? Download Form 




বাংলার কৃষকদের জন্য এক বড় পদক্ষেপ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্ক প্রসূত প্রকল্প 'কৃষক বন্ধু' (Krishak Bandhu) । রাজ্যের কৃষকদের সুবিধার জন্য, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কৃষকবন্ধু প্রকল্প ২০২০ সালে প্রচলন করেন। এই প্রকল্পের সহায়তায় সকল কৃষকের জন্য কৃষিক্ষেত্রে ফসল বীমার সহায়তা ছাড়াও পারিবারিক বীমা প্যাকেজ, ডেথ প্যাকেজ ইত্যাদি সুবিধা প্রদান করা হয়।


ইতিমধ্যে কৃষক বন্ধু প্রকল্প বাস্তবায়নের সাথে সাথে আবেদনকারীরা আর্থিক সুবিধা পেয়েছেন। কিন্তু এখনও অনেক কৃষক রয়েছেন, যারা এই প্রকল্পে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করে উঠতে পারেননি। আবার অনেকে ২০২০-২১ বর্ষে কৃষকবন্ধু প্রকল্পের ফর্ম ফিলাপের অপেক্ষায় রয়েছেন। চলুন দেখে নেওয়া যাক, কীভাবে অনলাইনেই আপনি এই ফর্ম ফিলাপ করতে পারবেন।

  • প্রকল্প অনুযায়ী প্রত্যেক সুবিধাভোগীকে ২,০০,০০০ টাকার জীবন বীমা (Life Cover Insurance) প্রদান করা হবে।
  • প্রকল্পটি বাস্তবায়নের সময়কালে দুর্ঘটনাক্রমে কোন কৃষকের মৃত্যু হলে তার পরিবারকে পূর্ণ বীমার টাকা সরবরাহ করা হবে।
  • ক্রপ কভার ইন্সিওরেন্স অর্থাৎ ফসলের বীমার টাকা দুটি কিস্তিতে সুবিধাভোগীদের দেওয়া হবে।
  • কৃষকের মৃত্যুর ১৫ দিনের মধ্যে বীমার টাকা সরবরাহ করা হবে।
  • ফসল বীমার জন্য প্রিমিয়ামও রাজ্য সরকার এই প্রকল্পের আওতায় থাকা সকল সুবিধাভোগীকে প্রদান করবে।
  • খারিফ এবং রবি মরসুমে দু'টি কিস্তিতে একর প্রতি ৫,০০০ টাকা সুবিধাভোগীদের প্রদান করা হয়। তবে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন এবার থেকে ১০০০০ টাকা প্রদান করা হবে। 



আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় নথি (Important Document)-
  • আগ্রহী আবেদনকারীদের তাদের বাসস্থানের নথি জমা দিতে হবে।
  • রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছে যে ১৮-৬০ বছর বয়সের মধ্যে সকল আবেদনকারী এই বীমার সুবিধা পেতে পারেন, তাই তাঁদের বয়সের প্রমাণপত্র জমা দিতে হবে।
  • প্রার্থীদের পরিচয়পত্রের প্রমাণ স্বরূপ তাদের ভোটার বা আধার কার্ডের অনুলিপি জমা দিতে হবে।
  • সমস্ত আর্থিক স্থানান্তর ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে হবে। সুতরাং, আবেদনকারীদের অবশ্যই তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত বিশদ জমা দিতে হবে।


কৃষক বন্ধু প্রকল্প অনলাইন নিবন্ধন ফর্ম এবং লগ ইন প্রক্রিয়া –

এখনো পর্যন্ত অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ শুরু করা হয়নি, অফলাইনে এবং 'দুয়ারে সরকার' শিবিরের মাধ্যমে   আবেদন পত্র জমা নেওয়া হচ্ছে। 
অফলাইন আবেদনের জন্য ফর্ম  download করতে চাইলে  ক্লিক করুন- PDF 

কৃষক বন্ধু প্রকল্পে আপনার নাম রয়েছে কিনা তা দেখতে পারবেন অনলাইনেই, শুধুমাত্র আপনার ভোটার কার্ডের নাম্বার দিয়ে। 

  • আপনার নাম দেখার জন্য প্রথমেই আপনাকে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://krishakbandhu.net/–এ লগ ইন করতে হবে।
  • হোম পেজ আসবার পর 'নথিভুক্ত কৃষকের তথ্য নামে একটি ট্যাব পাবেন। এখানে ক্লিক করে আপনার ভোটার কার্ডের নাম্বার দিয়ে দেখে নিতে পারবেন আপনার নাম নথিভুক্ত রয়েছে কিনা, কত একর জমি নথিভুক্ত হয়েছে ইত্যাদি যাবতীয় তথ্য।

FAQ for Krishak Bandhu (Assured Income) Scheme

১) কে এই প্রকল্পে সহায়তা পাওয়ার যোগ্য? – Who is eligible to get benefit of the scheme?

উত্তর: নিজ নামে পরচা থাকা যে কোনো কৃষক ও নথিভুক্ত ভাগচাষী।

২) দরখাস্তের সাথে কি কি নথি যুক্ত করতে হবে? – Which documents are required for application?

উত্তর: ভোটার কার্ড, পরচা, ব্যাঙ্ক পাসবুকের প্রথম পাতা । বাতিল চেক (যাচাই এর জন্য মূল নথি সঙ্গে আনতে হবে) এর একটি করে প্রতিলিপি এবং পাসপোর্ট সাইজের সাম্প্রতিক একটি ছবি।

৩) দরখাস্তকারী কি প্রাপ্তি স্বীকারের রসিদ পাবেন? – Will Farmers get any acknowledgement after submission of the Application?

উত্তর: হ্যাঁ, তাঁরা প্রাপ্তি স্বীকারের রসিদ পাবেন৷

৪) কত টাকা সহায়তা পাবেন? – How much is the Extent of Assistance?

উত্তর: প্রতি বছরে সর্বাধিক 5,000/- টাকা ও সর্বনিম্ন 2,000/- টাকা পাবেন। অনুমোদিত সহায়তার পরিমাণের 50% করে দুই সমান কিস্তিতে পাবেন। তবে নতুন ঘোষণা অনুসারে ১০,০০০ টাকা পাওয়া যাবে। 

৫) কিভাবে টাকা পাবেন? – What will be the Mode of Payment?

উত্তর: উপভোক্তাদের ব্যাঙ্ক একাউন্টে সরাসরি টাকা ঢুকে যাবে (DBT)।

৬) কৃষকরা কি দরখাস্ত পূরণের ব্যাপারে কোনো সাহায্য পাবেন? – Will the Farmers get assistance in Filling up of the Application Form?

উত্তর: সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত 8336957370 / 6291720406 এই দুই নাম্বারে ফোন করে আপনার সমস্যার কথা জানাতে পারবেন, এমনকি krishak.bandhu@ingreens.in এখানে মেইল করেও আপনার অসুবিধা জানাতে পারবেন। 


Govt. of West Bengal, DOA has introduced an unique Assured financial Assistance to all Farmers and farm household families of West Bengal under a single benefit scheme, “Krishak Bandhu”. It’s a single digitised card based identity of all farmers of West Bengal. Direct benefit includes, 1. Farmers with one or more acre landholding entitled for 5000/- per annum (Rabi & Kharif Season) assistance with minimum 2000/- per annum assistance pro rata basis. 2. Under Death Benefit Scheme farm family will be facelifted one time lump sum 2 lakh. Farmer’s personalized authenticated DOA specified database captured digitally, stored in Krishak Bandhu cloud, analysed and digitally verified with L&LR database synchronization by DOA officers. This system verified authenticated data shared with State & District Co-Operative Banks by DOA for direct benefit disbursement. Personalised “Krishak Bandhu” digital Smart Card will be given to farmers to authenticate beneficiaries, for all further Govt assistances in future.

No comments:

Post a Comment