Breaking

Saturday, April 03, 2021

বর্ধমানে বেহুলা নদী ভরাট করে গৃহ নির্মাণ




বর্ধমানে বেহুলা নদী ভরাট করে গৃহ নির্মাণ



প্রতিনিধি সঞ্জিত কুড়ি পূর্ব বর্ধমান :- 


বিধানসভা ভোটের মুখে বর্ধমান সরাইটিকর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের খাগড়াগর এলাকা দিয়ে বয়ে যাওয়া বেহুলা নদীর বেশ কিছু অংশ ভরাট করে চলছে গৃহ নির্মাণ। খবর সংগ্রহ করতে গেলে হেনস্থার শিকার হতে হয় সাংবাদিকদের।এই ঘটনাকে কেন্দ্রকরে চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকা জুড়ে। জেলা প্রশাসনকে জানিয়েও কোন লাভ হচ্ছে না জানালেন তৃণমূলের বর্ধমান ১ নং ব্লক সভাপতি কাকুলি গুপ্ত তা।একি কথা বলেন সরাই টিকর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান উৎপল ঘোষ।




পৌরানিকে উল্লেখ আছে বেহুলা লক্ষিন্দরের নাম।বেহুলা নামেই বর্ধমান সরাইটিকর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপর দিয়ে বয়ে গেছে বেহুলা নদী এই বেহুলা নদীর বেশ কিছু অংশ ভরাট করে চলছে গৃহ নির্মাণ। এর আগেও এই বেহুলা নদীর বিস্তীর্ণ এলাকা ঘিরে চলছিল গৃহ নির্মাণ। তৎকালীন জেলা শাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তদন্ত করেছিলেন তৎকালীন জেলা শাসক।কিন্তু তাতেও কোনো লাভ হয়নি। ফের জবর দখল করে গৃহ নির্মাণ করছেন স্থানীয় এক শ্রেণীর মানুষ।



নদী ভরাট কারী সেখ সানি বলেন এটা আমাদের মালিকানা।আমরা এখান দিয়ে হাই ড্রেনের জন্য সংস্কার করা হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন বেআইনী ভাবে নদী ভরাট করে একশ্রেনীর মানুষ নিজের ইচ্ছে মতো দখল করে নিচ্ছে। বর্ধমান ১ নং ব্লকের তৃণমূল সভাপতি কাকুলী তা বলেন বেহুলা নদী একটি বহু পুরোন নদী। এর আগেও এই নদী ভরাটের অভিযোগ উঠেছিলো সেইমত আমরা জেলা প্রশাসনকে বারংবার জানিয়েছি কিন্তু কোনো লাভহয়নি। সরাই টিকর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান উৎপল ঘোষ বলেন আগেও এই ধরনের অভিযোগ আগেপেয়ে আমরা পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বিডিও জেলাশাসকেও জানান হয়েছিলো জেলা প্রশাসন উদ্যোগ নিয়ে সেটা বন্ধ করে সংস্কার করা হয়েছিলো। আজ এখনো পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি তবে অভিযোগ করলে তা ক্ষতিয়ে দেখা হবে। এবং সামনে বর্ষার আগে বেহুলা নদীর সংস্কার করা হবে। পাশাপাশি খবর সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদের হেনস্থার করায় তীব্র নিন্দা করে উপ প্রধান।

No comments:

Post a Comment