৩ ছাত্রীকে তল্লাশীর নামে মারধরের অভিযোগ BSF এর বিরুদ্ধে, মিথ্যা বদনাম দেওয়ার চেষ্টা, দাবী BSF এর

৩ ছাত্রীকে তল্লাশীর নামে মারধরের অভিযোগ BSF এর বিরুদ্ধে, মিথ্যা বদনাম দেওয়ার চেষ্টা, দাবী BSF এর

three girls students



মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় তিনজন স্কুল ছাত্রীকে তল্লাশির নামে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল ৯০ ব্যাটেলিয়ন বিএসএফ ক্যাম্পের এক মহিলা বিএসএফের বিরুদ্ধে।

দিনহাটা ১ নং ব্লকের সীমান্তবর্তী গিতালদহ ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ভোরাম পয়েস্তি গ্রামের বাসিন্দা ওই তিন স্কুল ছাত্রীর অভিযোগ তারা আজকে যখন তাদের মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন সেই সময় প্রতিদিনের মতো তাদেরকে পথ আটকে যথারীতি স্কুলের ব্যাগ তল্লাশি করে বিএসএফ ক্যাম্পের ওই মহিলা বিএসএফ কর্মী। তারপর তল্লাশির পরে ছাত্রীরা নিজেদের মতো পরীক্ষা সম্পর্কে কথা বলতে ধরলে ওই মহিলা বিএসএফ কর্মী সন্দেহ করে ছাত্রীরা তাকে নিয়েই কথা বলছে, আর তারপর তাদেরকে মারধর করে।

এরপর অভিভাবকরা তিন ছাত্রীকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে, প্রাথমিক চিকিৎসার পর পরীক্ষার কথা চিন্তা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাড়িতে সম্পূর্ণ রেস্টে থাকার ব্যবস্থা করে। ইতিমধ্যেই ৯০ ব্যাটেলিয়ন বিএসএফের মহিলা কর্মীর বিরুদ্ধে শারীরিক নিগ্রহের অভিযোগে দিনহাটা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে গিতালদহ উচ্চ বিদ্যালয়ের ঐ তিন ছাত্রী।

ছাত্রীদের সাথে সাথে একই অভিযোগ করেন তাদের অভিভাবকরাও। তিন ছাত্রীর অভিভাবকরা জানায় আজ পরীক্ষার পর তাদের মেয়েরা স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে কান্না করতে থাকলে মেয়েদেরকে জিজ্ঞাসা করে তারা জানতে পারে বিএসএফের মহিলা কর্মী তাদেরকে ধরে মারধর করেছে। আরও অভিযোগ সীমান্তের বাসিন্দা হওয়ায় সাধারণ নাগরিকদের সাথে সাথে রোজ বিএসএফরা ছাত্র-ছাত্রীদের সাথেও দুর্ব্যবহার করে। আজকের ঘটনা নিয়ে থানায় অভিযোগ করলে তাদেরকে গুলি করার মতো হুমকি দেয় বিএসএফ এমনটাই অভিযোগ ওই ছাত্রছাত্রী ও তাদের অভিভাবকদের।

যদিও ঘটনা প্রসঙ্গে গিতালদহ ৯০ ব্যাটেলিয়ন বিএসএফ ক্যাম্পের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এমন কিছুই ঘটনা ঘটেনি। আমাদের কর্তব্যরত বিএসএফের মহিলা কর্মীরা এসেছিল ছাত্রীদের ব্যাগ চেক করতে কিন্তু তারা ব্যাগ চেক না করেই যেতে চেয়েছিল আর তারপরেই বিএসএফ তাদের ব্যাগ চেকআপ করাতে তারা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে। অপরদিকে ছাত্রীদের মারধর করার অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করে বিএসএফ জানায় কি হয়েছে সেটা সম্পূর্ণ সিসিটিভিতে রেকর্ড রয়েছে তাই ছাত্রীরা ও তাদের অভিভাবকেরা যদি বিএসএফের নামে মিথ্যা বদনাম দেওয়ার চেষ্টা করে তাহলে বিএসএফের তরফ থেকেও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Post a Comment

thanks