Breaking

Tuesday, May 04, 2021

কঙ্গনার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করলো টুইটার

কঙ্গনার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করলো টুইটার





টুইট করে বিতর্কে জড়ানো নতুন কিছু নয় বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের। এর আগেও একের পর এক টুইট বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি। এবার এক উস্কানিমূলক পোস্টের জের টুইটারের কোপে পড়তে হল তাঁকে। সাসপেন্ড করা হল তাঁর অ্যাকাউন্ট।


এক জাতীয় সংবাদ মাধ্যম অনুসারে মাইক্রো ব্লগিং সাইটের নির্দেশিকা লঙ্ঘন করে এমন টুইট পোস্ট করার পরে কঙ্গনা রানাউতের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে সাসপেন্ড করা হয়েছে। একাধিক টুইটের মাধ্যমে অভিনেত্রী পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে আপত্তিজনক মন্তব্য করেছিলেন। রবিবার (২ মে) রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর রাজ্যে ঘটে যাওয়া কথিত সহিংসতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করেছিলেন এই অভিনেত্রী।



মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস (টিএমসি) রাজ্যের সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পরে এবং বাংলায় সহিংসতার খবর পাওয়া যাওয়ার পরে কঙ্গনা 'পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতির শাসনের দাবি' করেছিলেন। কঙ্গনা বলেছিলেন যে আসাম ও পুদুচেরি থেকে কোনও সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি, যেখানে বিজেপি জিতেছে, তবে টিএমসি বাংলায় জয়ের পরে ‘শত শত খুন এবং #Bengalisburning ।



টুইটার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করার পরে কঙ্গনা রানাউত নিউজ এজেন্সি এএনআইকে বলেছেন, "টুইটার কেবলমাত্র আমার বক্তব্য প্রমাণ করেছে যে তারা আমেরিকান এবং জন্মের পরে একজন সাদা ব্যক্তি একজন বাদামী ব্যক্তিকে দাস করার অধিকার বোধ করে, তারা আপনাকে তারা আপনাকে কী ভাবতে, কথা বলতে বা করতে হবে তা বলতে চায় I আমার কাছে অনেকগুলি প্ল্যাটফর্ম রয়েছে যেগুলি আমার নিজের শিল্পকর্মটি চলচ্চিত্রের আকারে ভয়েস বাড়াতে ব্যবহার করতে পারি।"



টুইটারের মুখপাত্র জানান, কোনো উসকানিমূলক টুইটের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নেব এ বিষয় আমরা স্পষ্ট জানিয়েছি আগেই। টুইটার ব্যবহারের কোনো শর্তাবলীই মানছিলেন না কঙ্গনা। বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের জন্যই তাঁর টুইটার সাসপেন্ড করা হয়েছে। অন্য কেউও যদি তা করেন, একই পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

No comments:

Post a Comment