Breaking

Friday, October 23, 2020

মুম্বই বোলারদের সাঁড়াশি আক্রমণ ও ঈশানের মারমূখী ব্যাটিংয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেলো চেন্নাই

মুম্বই বোলারদের সাঁড়াশি আক্রমণ ও ঈশানের মারমূখী ব্যাটিংয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেলো চেন্নাই


SANGBAD EKALAVYA:

আইপিএলের চলতি সংস্করণে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ৬টি ম্যাচে জয়ের সুবাদে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ইতিমধ্যেই প্লেঅফের রাস্তা অনেকটা পরিষ্কার। অপরদিকে আইপিএলের প্রতিটি সংস্করণে প্লেঅফে খেলা চেন্নাই সুপার কিংস এবছর একের পর এক ম্যাচ হেরে সবার শেষে আছে। প্লেঅফে যাওয়ার স্বপ্ন তাঁদের কাছে দূরঅস্ত। যদিও ক্ষীণ আশাটুকু বাঁচিয়ে রাখার তাগিদে আজ মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে নেমেছিলো তাঁরা। কিন্তু মুম্বই বোলারদের সাঁড়াশি আক্রমণে খেই হারিয়ে এবারের টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেলো তাঁরা।


পরিবর্ত মুম্বই অধিনায়ক পোলার্ডের কাছে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে রীতিমতো ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে চেন্নাই। ট্রেন্ট বোল্ট, জসপ্রীত বুমরাহ, রাহুল চাহার দের বোলিংয়ে মাত্র ৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কাঁপুনি ধরে যায় চেন্নাই টপঅর্ডারের। প্রথম খেলতে নামা ঋতুরাজ গায়কোয়াড়, ডুপ্লেসি, আম্বাতি রায়াডু, এন জগদিশান বা রবীন্দ্র জাদেজা কেউই দুই অংকের রানে পৌঁছাতে পারেননি। ধোনি (১৬ বলে ১৬) কিছুটা চেষ্টা করলেও সেটা যথেষ্ট ছিলোনা। ৯ ওভারের মধ্যেই ৪৩ রানে ৭ উইকেট হারায় তাঁরা। 


এরপর শার্দুল ঠাকুর (২০ বলে ১১) এবং ইমরান তাহির (১০ বলে ১৩) কে নিয়ে দলের স্কোরকে কিছুটা সম্মানজনক জায়গায় নিয়ে যান স্যাম কুরান। তিনি ২টি ছয় ও ৪টি চারের সাহায্যে ৪৭ বলে ৫২ রান করে ইনিংসের শেষ বলে বোল্ড হন। ১১৪-৯ এ থামে চেন্নাই সুপার কিংস। মুম্বই বোলারদের মধ্যে ট্রেন্ট বোল্ট ৩টি, বুমরাহ এবং রাহুল চাহার ২টি করে উইকেট পেয়েছেন।


জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চালিয়ে খেলতে থাকেন দুই মুম্বই ওপেনার কুইন্টন ডিকক এবং ঈশান কিষান। চেন্নাইয়ের কোনো বোলারকেই রেয়াত না করে চার-ছয়ের বন্যা বইয়ে দেন দুজনে। ডিকক ২টি ছয় ও ৫টি চারের সাহায্যে ৩৭ বলে অপরাজিত ৪৬ রান করেন। কিন্তু ঈশান কিষান ৫টি ছয় ও ৬টি চারের সাহায্যে মাত্র ৩৭ বলে ৬৮ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন।


আজকের জয়ের ফলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দিল্লিকে টপকে ফের শীর্ষস্থানে পৌঁছে যায়।

No comments:

Post a Comment